ইসলাম বিদ্বেষী অস্ট্রেলিয়ার সিনেটরের মাথায় ডিম ভেঙ্গে প্রতিবাদ করলেন এক সাহসী তরুন - Slogan71.com

ব্রেকিং নিউজ

Slogan71.com

Slogan71.com

ইসলাম বিদ্বেষী অস্ট্রেলিয়ার সিনেটরের মাথায় ডিম ভেঙ্গে প্রতিবাদ করলেন এক সাহসী তরুন

    
     Video  

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে দুটি মসজিদে এক শেতাঙ্গ বন্দুকধারীর নৃশংস হামলায় ঝড়ে গেছে ৪৯টি তাজা প্রাণ। আহত হয়েছেন আরো অন্তত ৪৮জন। আর এসব ঘটনার কারণ হিসেবে দেশটির ইমিগ্রেন্টকে দায়ী করেছেন অস্ট্রেলিয়ার সিনেটর ফ্রেসার আনিং। তার এমন মন্তব্যের জের ধরে তার মাথায় ডিম ভাঙেন এক তরুণ।
অস্ট্রেলিয়ার সিনেটর ফ্রেসার আনিংয়ের মাথায় ডিম ভাঙা হচ্ছে এমন একটি ভিডিও ইতোমধ্যে ছড়িয়ে পড়েছে অনলাইনে। ভিডিওতে দেখা যায়, সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাব দেয়ার মূহুর্তে সাদা টি-শার্ট পরা এক তরুণ পেছন থেকে এসে সিনেটরের মাথায় ডিম ভাঙে। এরপর ওই তরুণকে মারতে থাকেন ফ্রেসার আনিং। 

এর আগে অস্ট্রেলিয় এই সিনেটর এ হামলাকে সন্ত্রাসী ঘটনার পরিবর্তে এটিকে 'সহিংস সতর্কতা' বলেছেন। হামলা নিয়ে আনিং এক বিবৃতিতে বলেছেন, মুসলিমদের উপস্থিতি বাড়ার ফলে অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ড উভয় সম্প্রদায়ের ভয়কে বাড়িয়ে তুলছে।

ফ্রাজার অ্যানিং বলেছেন, আমি আমাদের কমিউনিটির মধ্যে যেকোনও ধরনের সহিংসতার বিপক্ষে এবং এই বন্দুকধারী যা করেছেন, তার নিন্দা জানাচ্ছি। আইন নিজের হাতে তুলে নিয়ে এই ধরনের সহিংসতার ঘটনা ঘটানোকে কোনোভাবেই সমর্থন করা যায় না। এটি অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ডে মুসলিমদের উপস্থিতি বৃদ্ধির ফলে আমাদের মধ্যে আতঙ্ক বাড়ার বিষয়টিকে হাইলাইট করছে।

সিনেটর অ্যানিং বলেন, সবসময়ের মতো বামপন্থি রাজনীতিকেরা এবং গণমাধ্যমগুলোর দাবি আজকের গোলাগুলির কারণ বন্দুক সংক্রান্ত আইন বা জাতীয়তাবাদী মতাদর্শের সঙ্গে সম্পৃক্ততা। কিন্তু এসব বোকাদের চিন্তাভাবনা। তিনি বলেন, নিউজিল্যান্ডে রক্তপাতের প্রকৃত কারণ হলো ইমিগ্রেশন প্রোগ্রাম। কারণ এর ফলে মুসলিম ধর্মান্ধদেরকে নিউজিল্যান্ডে বসবাসের অনুমতি দেয়া হয়েছে।

অস্ট্রেলিয়ার এই সিনেটর বলেন, বিষয়টি পরিষ্কার করে বলছি, আজ মুসলিমরা হামলার শিকার হয়েছে, সাধারণত তারাই কুকর্মকারী। বিশ্বব্যাপী মুসলিমরা ‘একটি ইন্ডাস্ট্রিয়াল স্কেলের ওপর’ বিশ্বাসের নামে মানুষ খুন করছে।

এর আগে এলিজা বার নামের এক অস্ট্রেলিয়ান সাংবাদিক তার টুইটার অ্যাকাউন্টে অ্যানিংয়ের বিবৃতিটি পোস্ট করে লিখেছেন, আরো একবার ফ্রাজার অ্যানিং মুসলিমদের সম্পর্কে তার উগ্র, অমানবিক এবং ধর্মীয়ভাবে অপ্রাসঙ্গিক মন্তব্য করে আমার ধর্মকে আঘাত করলেন। এসব হলো ঘৃণ্য মন্তব্য। তাই এগুলোকে অবশ্যই জঘন্য ও বিকৃতমস্তিষ্কের মানুষের কথা বলে নিন্দা জানাতে হবে। তিনি নেতৃত্ব দেয়ার যোগ্য নন।