হত্যাকারীকে ক্ষমা করে দিলেন ক্রাইস্টচার্চে স্ত্রী হারানো বাংলাদেশি ফরিদ - Slogan71.com

ব্রেকিং নিউজ

Slogan71.com

Slogan71.com

হত্যাকারীকে ক্ষমা করে দিলেন ক্রাইস্টচার্চে স্ত্রী হারানো বাংলাদেশি ফরিদ


   
হত্যাকারীকে ক্ষমা করে দিলেন ক্রাইস্টচার্চে স্ত্রী হারানো ফরিদ
নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে দুই মসজিদে সন্ত্রাসী হামলায় স্ত্রীকে হারিয়ে হুইল চেয়ারে চলাফেরা করছেন ফরিদ আহমেদ। জুমার দিন তাকে মসজিদে নিয়ে এসেছিলেন স্ত্রী হোসেন আরা পারভীনই।
নামাজ শুরুর ১০ মিনিট আগে ক্রাইস্টচার্চের আল নুর মসজিদে নির্বিচার গুলি চালায় শ্বেতাঙ্গ খ্রিস্টান সন্ত্রাসী ব্রেনটন ট্যারেন্ট। এসময় স্বামীকে বাঁচাতে গিয়ে গুলিতে ঝাঁজরা হয়ে মুখ থুবড়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন হোসনে আরা।
তুর্কি সংবাদমাধ্যম টিআরটিয়ের প্রতিবেদনে বলা হয়, স্ত্রী পারভিনকে হারিয়ে অনেকটাই স্তব্ধ ফরিদ। স্ত্রী হারানোর শোক কাটিয়ে উঠতে পারছেন না কিছুতেই। তবে হামলাকারী সম্পর্কে ফরিদ আহমেদ বলেন, আমি তাকে বলবো- একজন মানুষ হিসেবে তাকে আমি ভালোবাসি। তবে সে যে ঘটনা ঘটিয়েছে, তা মেনে নিতে পারি না। সে ভুল কাজ করেছে।
ওই সন্ত্রাসীকে ক্ষমা করবেন কিনা এমন প্রশ্নে ফরিদ বলেন, অবশ্যই। সবচেয়ে উত্তম বিষয় হলো- ক্ষমা করে দেয়া, উদারতা প্রদর্শন, ভালোবাসতে ও যত্ন নিতে পারা, ইতিবাচক হওয়া।
সংবাদ মাধ্যম বিবিসিকে দেয়া সাক্ষাৎকারে ফরিদ আহমেদ বলেন, গুলি শুরু হয়েছে মসজিদের হলওয়ে থেকে। হলওয়ের এক সাইডে ছিল লেডিস রুম। আমার ওয়াইফ ওখানে বেশ কিছু লেডিস ও চিলড্রেনদের (নারী ও শিশু) বাঁচানোর জন্য ওদের গেট দিয়ে বের করে মসজিদের বাম সাইডে একটা নিরাপদ জায়গায় রেখে ফিরে আসছিল আমাকে সাহায্য করতে। ও যখন ফিরে আসছিল তখন গেটের কাছে ওকে গুলি করা হয়।

তিনি বলেন, আমার স্ত্রী অত্যন্ত জনদরদি মহিলা। মানুষকে বাঁচানোর জন্য তিনি যেভাবে প্রাণ দিয়েছেন এটা গর্বের।

ফরিদ বলেন, ও যেরকম ভালো মানুষ ছিল; ও কিছু ভালো কাজ করে চলে গেছে। এখন ও হাসতেছে। কিন্তু মানুষ ওর জন্য কাঁদবে।

গেলো শুক্রবার জুমার নামাজের সময় ক্রাইস্টচার্চে দুটি মসজিদে এক শ্বেতাঙ্গ খ্রিস্টান সন্ত্রাসীর গুলিতে ৫ বাংলাদেশিসহ কমপক্ষে ৫০ জন নিহত হন। আহত হন আরো ৪৬ জন, যাদের ১২ জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। নিহত বাংলাদেশিদের একজন হোসনে আরা পারভীন।